অনলাইন কেলেঙ্কারি একটি টোপের অর্থ আয়ের প্রচেষ্টা। নকল নাম, নকল ছবি, নকল ইমেল, নকল তথ্য, নকল চাকরি ইত্যাদি এই পর্যায় পরে।

সাধারনত আপনার অনলাইন ব্যাঙ্কিং বা ক্রেডিট কার্ড এর তথ্য ইমেইল পাথানর মাধ্যমে সুরু হয়ে। কখনও ইমেইল লটারি কম্পানিরা এই মেল বা নকল বিজ্ঞপ্তি পাঠানো হয়। সাইবার ক্রিমিনাল রা সোশ্যাল মিডিয়া অতিসরল মানুষদের ঠকানো হয়।

কি ভাবে দুষ্ট লোকেরা মহিলাদের আক্রমন করেন

  • ডেটিং কেলেঙ্কারি

সাধারনত অনলাইন ডেটিং সাইট গুলোতে সোশ্যাল মিডিয়া বা ইমেল পাঠিয়ে এই সমস্ত দুস্ক্রিতিরা কাজ করে। তারা তাদের শিকারকে প্রথমে ফন পরজন্ত করে। শেই সমস্ত দুস্ক্রিতি, জাদেরকে ক্যাটফিশিং পর্যন্ত বলা হয়, তারা নকল প্রফাইলও তৈরি করে এবং সেনাধ্যক্ষ বা এইডস কর্মী বা বিদেশে থাকা ব্যাক্তিত্ব এমন রুপ ধরে এবং আপনার বিশ্বাস অর্জন করার উদ্দেশ্যে আপনার সাথে দীর্ঘ বার্তালাপ পর্যন্ত করে। এবিং এই ভাবেই আপনার থেকে আপনার বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ তত্ব জেনে নেয়।

একবার আপনার বিশ্বাস অর্জন করে নিলে আপনার থেকে অর্থ, উপহার বা ব্যাঙ্কের ক্রেদিট কার্ডের ব্যাপারে জানবে। আপনার থেকে আপনার ছবি বা ভিডিও ও চেয়ে নেবে, জা সে অসৎ কাজে প্রয়োগ করবে।

  • লটারি দুষ্কৃতি

আপনি মাঝে মাঝেই এমন মেল বা এস এম এস পেয়ে থাকেন, যেখানে বলা হয় আপনি একটি লটারি জিতেছেন, যা আপনাকে অত্যন্ত দেয়। যখনই সেই মেল বা এস এম এস এর উত্তর দিয়ে আপনার তথ্য আপনি দেবেন, তখনি আপনি তাদের পাতা ফান্দে পা বারালেন।

  • নকল কুইজ যা আপনার থেকে তথ্য বার করে নেয়

আপনি সিনেমা বা ভিডিও গেমে থাকা কুইজ দেখে থাকেন। প্রকৃতপক্ষে সেখানে আপনি বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তর দেন আর সেই প্রশ্নের উত্তর সঠিক দেবার জন্য আপনাকে পুরস্কৃত করা হবে বলে, আপনার থেকে আপনার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হাতিয়ে নেয়। এই তথ্য অনত্র বিক্রি করে দেওয়া হয়। অনেক সময়ে আপনি দেখতে পাবেন যে আপনার ফেসবুক ইত্যাদি দ্বারা লগইন করতে বলা হয় সেই সব জায়গায়, আর তার মাধ্যমে আপনার বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য চুরি করে নেবার চেষ্টা করা হয়। আপনি কি করেন, কিসে চাকরি করেন এই সব তথ্য হাতিয়ে নেওয়া হয়।

  • ইমেল কেলেঙ্কারি যেখানে আপনি ওয়েবক্যাম জিতেছেন বা ডিজিটাল ক্যামেরা জিতেছেন, এমন বলা থাকে

অনেক সময়ে আপনি এমন ইমেল পান, যেখানে বলা থাকে যে আপনি আকর্ষণীয় পুরস্কার জিতেছেন, আর তা পেতে গেলে আপনাকে আপনার ব্যাঙ্কের তথ্য, যেমন ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ড দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। আপনি সেই পুরস্কার তো কন দিন পান না, উপরন্তু আপনি দেখবেন, আপনার ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ কিছু টাকা গায়েব হয়ে গেছে।

  • কর কেলেঙ্কারি

সরকারি আধিকারিক বলে আপনার কাছে এসে আপনার কর দেওয়া বাকি এবং তা তক্ষনি দিতে হবে বলে দাবি করে, আর তা না করলে আপনার বিশেষ সাজা হবে এমন টাও বলা হয়। এখানে আপনার জেনে রাখা উচিত যে সরকারি কেউ আপনার থেকে তক্ষনি অর্থ চাইবেনা যতক্ষণ না আপনাকে সমস্ত কিছুর পরে কনো বিল দেওয়া হচ্ছে। সাধারনত আপনার থেকে এরা আপনার ক্রেডিট কার্ডের তথ্য চায়, আয়কর দপ্তরের নাম করে।

  • নকল বন্ধুত্ব হতে সাবধান

আপনার হয়ত কিছু ফেসবুক ইত্যাদি তে বন্ধু হতে পারে জাকে আপনি সামনে থেকে কোন দিন দেখেননি। কিন্তু আপনি তাকে বিশ্বাস করে অনেক কিছু তথ্য দেন। এরা আপনার থেকে আপনার বাড়ির সমস্ত তথ্য সংরহ করে আর বিশেষ করে আপনি কবে বাড়ি খালি করে বেরাত যাচ্ছেন তা জানে। জানবেন যে এরা আপনি বাড়ি খালি করে যাবার কথা জেনে আপনার বাড়িতে দাকাতি করার চিন্তা করছে।

  • টাকা বৃদ্ধির কেলেঙ্কারি

সাধারনত এই দুষ্কৃতিরা আপনাকে ইন্সতাগ্রাম ইত্যাদি থেকে বলবে সামান্য টাকা জমা দিতে আর আপনাকে তার পরিবর্তে দশ গুন টাকা ফিরত দেবার কথা বলবে। এরা প্রকারান্তরে আপনার মত অনেকের থেকে অল্প অল্প করে প্রচুর অর্থ লুট করাই এদের উদ্দেশ্য।

  • নকল চাকরীর সুযোগ

এই ক্ষেত্রে আপনাকে বলা হয় একটি লভনিয় চাকরীর কথা যেখানে প্রকৃত ভাবে আপনাকে কিছু সপ্তাহ চাকরীতে রেখে আপনার থেকে প্রথম চেক নেবার অপেক্ষায় থেকে আপনাকে চাকরি থেকে বিতারিত করে। এরা সাধারনত আপনাকে বড় অঙ্কের টাকা বেতন হিসাবে দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দেয়। এদের নেকেই অনলানে বাড়িতে বসে বসে কাজ করার কথা বলে আপনাকে, কিন্তু শেষে আর সেই টাকা আপনার কাছে এসে পৌছায় না।

  • দান সম্বন্ধনিয় কেলেঙ্কারি

শিকার কে মেইল বা ফোনের মাধ্যমে যোগাযোগ করে অর্থ সাহায্য চাওয়া হয়ে হাকে সাধারনত, এবং সেতা করা হয় বন্যা, তুফান ইত্যাদির জন্য ত্রান হিসাবে। বৈধ প্রতিষ্ঠান কখনও এই ভাবেতাকা চাইবে না আপনার থেকে।

  • ভারার সম্পত্তি জনিত কেলেঙ্কারি

শিকারকে ভারার সম্পত্তির জন্য টাকা পাঠাতে বলা হয়। কখনো কখনো একটি চেক তার নামে দেওয়া হয়, আর বলা হয় জাতে বাকি টাকাটা দিয়ে সে ব্যাঙ্কে জমা দিয়ে দেয়। জখ আপনি সেই টাকা জমা দিয়ে দেন, আর চেক ভাঙাতে যান তখন দেখেন যে আপনার চেক বাউন্স করেছে।

অনলাইন কেলেঙ্কারি আটকানোর উপায়গুলি

  • প্রথমে আপনাকে সতর্ক হতে হবে এতা জেনে যে কেলেঙ্কারি হয়

প্রতিতা কাজ যখন আপনি অনলাইনে করছেন, তখিন এতা মনে রাখা খুব আবশ্যক যে অলাইনে কিন্তু কেলেঙ্কারি হয়। তাহলে আপনি স্বভাবতই মেল করার সময়ে, বা ইস্তান্ত মেসেজিং করার সময়ে সতরক থাকবেন।

  • কার সাথে কাজ করছে, প্রথমেই জেনে নিন

যদি কারুকে আপনি কেবল মাত্র অনলাইনেই দেখে থাকেন, তবে একটু সময় নিয়ে তার সম্বন্ধে জেনে তবেই এগোন। সে কে, কার সাথে কাজ করে, তাকে আসলে কেমন দেখতে এই সব আপনি জেনে যাবেন।

  • আপনি ব্যাঙ্কের ইমেল থেকেই ব্যাঙ্কের তথ্য পাচ্ছেন কি না জেনে নিন

আপনি অনেক সময়েই ব্যাঙ্কের কর্মীর পরিচয় দিয়ে আপনার থেকে কেউ ব্যাঙ্কের তথ্য আপনার থেকে চায়। সেই ক্ষেত্রে দেখে নিন যে মেলটা ব্যাক থেকেই এসেছে কিনা। আপনাকে ব্যাঙ্ক থেকে কল না করে মেল করবে কেন?

  • সন্দেহজনক মেসেজ বা পপ উপ খুলবেন না। সাথে সাথে তাদের মুছে ফেলুন

যদি জেই ব্যাক্তির থেকে মেল আসছে বা আপনাকে যোগাযোগ করতে চাইছেন, তাকে না চেনেন, তাহলে সচারচর কোন মেসেজ খুলবেন না।

  • সোশ্যাল মিডিয়াতে আপনার প্রাইভেসি সেটিং দেখে নিন

সকল্কে আপনার তথ্য, বসবাসের স্থান বা ফোন নন্মবর ইত্যাদি দেখাবেন আ ফেসবুকে! এইতা যদি আপনি এরিয়ে এতে পারেন, তাহলে আপনি অনেক বিপদ বা কেলেঙ্কারির হাত থেকে বেচে ফিরতে পারবেন।

  • ইমেল এ জেই সামগ্রি দেখান হচ্ছে, তার সয়তা যাচাই করুন

সস্তায় বা বিশাল ছারের মাধ্যমে যা আপনি পাচ্ছেন, তার সব সময়ে বৈধতা দেখে নিন। একবার ভেবে দেখবেন, আপনি কোন অনলাইনে কেনাবেচার সাইটে ইদানিং কালে ঢুকেছিলেন কিনা।

  • চাকরি বা লটারি কেলেঙ্কারির ফান্দে পা দেবে না

যে সমস্ত মেলে আপনি জিতেছেন বলে উল্লেখ থাকে, তাতে অংসগ্রহন করবেন না।

  • অনলাইনে কেনাবেচা করার সময়ে সাবধান

কি ছার পাচ্ছেন আর সেই ছার সত্যই সম্ভব কিনা দেখে নেবেন আর ভেবে নেবেন। লোভে পা দেবেন না।

Page Rating (Votes : 0)
Your rating: